শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ :
পটুয়াখালীর মির্জাগন্জ্ঞে তরুনীকে জোরপূর্বক ধর্ষন চেষ্টায় ইউপি সদস্য আটক বরিশালের পপুলার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কলাপাড়ায় খেয়া পারাপারের নামে চাঁদাবাদীর অভিযোগ।।  খাল খনন উদ্বোধন করলেন মেয়র সাদিক সন্তান চুরির অভিযোগ বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে পড়ে কার্গো শ্রমিকের মৃত্যু ১৫’শ পিস ইয়াবাসহ আটক ১ স্বপ্নার হত্যাকারীর ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন বরিশাল মহানগর সম্মেলন-২০২৩ অনুষ্ঠিত সদর উপজেলা বি এন পির উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী পালন ৭ কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ২০ কেজি মাংস সহ গ্রেফতার-২ কলাপাড়ায় সুবিধাবঞ্চিতদের ফ্রি চক্ষুসেবা পর্যটকের হারানো ৪৮ হাজার টাকা কুড়িয়ে পেয়ে ফেরত দিলেন ফটোগ্রাফার হাবিব বরিশালে ৫ হাজার’পিস ইয়াবাসহ স্বামী-স্ত্রী গ্রেফতার
বিজয় দিবস উদ্যাপনে কুয়াকাটায় পর্যটকদের ভিড়

বিজয় দিবস উদ্যাপনে কুয়াকাটায় পর্যটকদের ভিড়

Sharing is caring!

পটুয়াখালী প্রতিনিধি  : অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত কুয়াকাটার নৈসর্গিক শোভার প্রানবন্ত ছোয়া পেতে ভ্রমণ পিপাসু হাজার হাজার পর্যটকপদভারে মুখরিত হয়ে উঠছে সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা। মহান বিজয় দিবসের আনন্দ উপভোগ করতে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সূর্যোদয় সূর্যাস্তের বেলাভূমিতে আগমন ঘটেছে এসব পর্যটকদের। এ বছর সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত এবং সাপ্তাহিক সরকারী ছুটি দু‘দিন হওয়ায় হাজার হাজার পর্যটকদের আগমন ঘটেছে বলে মনে করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। এছাড়াও সাবমেরিন ল্যান্ডিং ষ্টেশন, তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পায়রা বন্দর সহ নব নির্মিত শেখ রাসেল সেতুর উপর দর্শনার্থীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। পর্যটকদের নিরাপত্তায় সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে টুরিস্ট পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে।

ডিসেম্বরের ১৪ ও ১৫ তারিখ থেকেই পর্যটকরা কুয়াকাটায় আসতে শুরু করছে। সমুদ্র সৈকতে দাড়িয়ে  সূর্যোদয় সূর্যাস্ত অবলোকনের পর পর্যটকরা ছুটে যান রাখাইনদের আদি কুয়া অথবা রাখাইন পল্লিতে। কুয়াকাটার জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন রয়েছে নজরকাড়া প্যাগোডা। এই প্যাগোডা তথা শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধবিহার সংলগ্ন বেড়িবাঁধের পাশে রয়েছে দু‘শ বছরের প্রাচীনতম নৌকা। রাখাইন মহিলা মার্কেট, মিশ্রিপাড়ায় অবস্থিত এশিয়ার সর্ববৃহৎ সীমা বৈদ্ধ বিহার। ইকোপার্ক, লেম্বুরচর, শুটকিপল্লি সহ বিভিন্ন আকর্ষণীয় স্থান। পর্যটকদের বাড়তি বিনোদনে প্রস্তুত ছিল নৌ-তরি। কেউ বিচে  ছাতার নিচে বসে সাগরের জল আর সূর্য রশ্নির রঙ্গিন খেলায় মেতে উঠা অপরূপ দৃশ্য অবলোকন করে। ৩০ কিঃ মিঃ দীর্ঘ সৈকতের গাঁ ঘেষে গঙ্গামতির সংরক্ষিত বনাঞ্চল, দক্ষিনে দৃষ্টিসীমা যতদুর যায় শুধু নীল সাগরের জলরাশি অন্যদিকে দিগন্তজুড়ে লালিমা আকাশের গায়ে আবির মাখানো দৃশ্য পর্যটকদের অন্তরাতœাকে প্লাবিত করে দিচ্ছে। ঘোড়ার পিঠে চড়া আনন্দ উল্লাস করে থাকের আগত পর্যটরা।

ঢাকা থেকে আসা মুনির হোসেন বলেন, একই স্থানে দাড়িয়ে সূর্যোদয় আর সূর্যাস্ত উপভোগ করার দৃশ্য একমাত্র কুয়াকাটায় যা সত্যিই আনন্দ দায়ক।

কুয়াকাটার আবাসিক হোটেল ওশান ভিউ এর অপারেশন ম্যানেজার আল আমিন খান বলেন, ১৬ডিসেম্বর উপলক্ষে আমাদের হোটেলের সকল রুম বুকিং আছে এবং অন্যান্য হোটেলেও বেশ পর্যটক রয়েছে। শুধু তাই নয় বড় দিন তথা থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে হোটেলের রুম অগ্রিম বুকিং রয়েছে।

টুরিষ্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোন‘র পরিদর্শক হাসনাইন পারভেজ বলেন, আমরা সর্বদা নিরাপত্তায় নিয়োজিত আছি। এছাড়াও কুয়াকাটার বিভিন্ন র্স্পটগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন




© All rights reserved © crimeseen24.com-2017
Design By MrHostBD